সংবাদ শিরোনাম:
» « মাধবপুরে ট্রাক্টরের ধাক্কায় তিন মোটর সাইকেল আরোহীর নিহত» « দুর্গা পূজায় স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতের আহবান জানালেন এমপি আবু জাহির» « শহরের বিভিন্ন সড়কে দিন দুপুরে চলছে ট্রাক্টর ও ট্রাক» « মাধবপুরে মাদ্রাসা ছাত্রী ইয়াসমিনের মৃত্যুর রহস্য উদ্ঘাটন ॥ আদালতে ১৬৪ ধারা স্বীকারোক্তি» « সদর হাসপাতালে হেলপার দিয়ে অ্যাম্বুলেন্স চালানোর অভিযোগে দুই জনের কারাদন্ড» « দুই মহিলার ভিজিডির চাল আত্মসাতের অভিযোগে চেয়ারম্যান মুকুলকে শোকজ» « রোগির জরায়ু থেকে ৩৫টি টিউমার অপসারণ করলেন ডাঃ নুসরাত আরা» « রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের মূল যন্ত্রপাতি মোংলা বন্দরে» « নবীগঞ্জ উপজেলার ৯০ টি মন্ডপে শারদীয় দূর্গাপুজা শুরু আজ উত্তম কুমার পাল হিমেল,নবীগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ নবীগঞ্জ উপজেলার ১৩ টি ইউনিয়নে ৮৪ টি ও পৌরসভায় ৬টি মিলে ৯০ টি পূজার মন্ডপে বছর ঘুরে আবারো হিন্দু স¤প্রদায়ের সর্ববৃহৎ উৎসব শারদীয় দূর্গাপুজার প্রস্তুতি ইতিমধ্যে জোরেশোরে শুরু হয়েছে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার ষষ্টীবিহিত পুজার মাধ্যমে শুরু হচ্ছে ৫ দিনব্যাপী বাঙ্গালী হিন্দু সম্প্রদায়ের সর্ববৃহৎ উৎসব শারদীয় দুর্গাপুজা। আনন্দময়ীর আগমনে ধনী-গরিব আবালবৃদ্ধ সকল পুজারী ও ভক্তবৃন্দের মাঝে যেন আনন্দের কমতি নেই কোন অংশেই। বাঙ্গালী হিন্দুদের সর্ববৃহৎ উৎসব শারদীয় দুর্গাপুজার আগমনী শোর সকলের মাঝে বিরাজ করছে। প্রতিটি পুজা মন্ডপে প্রতিমা তৈরীর কাজ সম্পাদন করার জন্য দিনরাত নিরবিছিন্নভাবে কাজ করে প্রতিমা তৈরীর কাজ ইতিমধ্যে শেষ করছেন নিয়োজিত প্রতিমা শিল্পীরা। প্রতিমা তৈরীর কাজ শেষ করে রং তুলির আছড়ে সৌন্দর্য্য বর্ধনের কাজও শেষ করছেন বলে জানিয়েছেন প্রতিমা রঙ্গেও চিত্রশিল্পীরা। তারপর মন্ডপ সাজসজ্জার কাজ শেষ করলেই উৎসবের আমেজে মেতে উঠবেন সবাই। তাই শারদীয় এ পুজাকে কেন্দ্র করে হিন্দু ধর্মাবলম্বী সকল পুজারী ও ভক্তবৃন্দের মাঝে বিপুল আনন্দ ও উৎসাহ উদ্দীপনা বিরাজ করছে। আনন্দ ও উৎসাহ উদ্দীপনা ঘাটতি নেই বিভিন্ন সংগঠন ও সামাজিক লোকজনের মাঝেও ।তবে বর্তমান সময়ে বৈশ্বিক মহামারী করোনার কারনে এ বছর উৎসবের আমেজ অনেক কমে গেছে বলে জানিয়েছেন পুজারীবৃন্দ। তবে সরকার নির্দেশিত স্বাস্থ্যবিধি মেনেই পুজার আনন্দ ভাগাভাগি করবেন বলে জানিয়েছেন তারা। শাস্ত্রমতে জানাযায়, এ বছর দেবীর দোলায় আগমন ফল মড়ক এবং দেবীর গজে গমন করবেন ফল শষ্যপুর্ণা বসুন্ধরা। সমাজের সকল আসুরিক শক্তির বিনাশ সাধন করে সর্বত্র শান্তি স্থাপনের মুলমন্ত্রই হলো শারদীয় দুর্গাপুজার মুল উদ্দেশ্য। সারা দেশের ন্যায় এ বছর নবীগঞ্জ ১৩টি ইউনিয়নে ৮৪টি এবং পৌরসভায় ৬ টি মন্ডপে সাড়ম্বরে পূজা অনুষ্টিত হবে। প্রত্যেক পূজা মন্ডপের নিরাপত্তা রক্ষায় এ বছর সরকারী সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পুলিশ ও আনসার বাহিনীর লোক নিয়মিত সময় না থাকায় সেচ্ছাসেবকরাই প্রতিটি পুজামন্ডপে দায়িত্ব পালন করবে। এছাড়া উপজেলায় ৯০ টি পুজামন্ডপের জন্য নবীগঞ্জ থানা পুলিশের ৯টি মোবাইল টীম সার্বক্ষনিক নিরাপত্তা রক্ষার দায়িত্ব পালন করবে। ইতিমধ্যে গত ১২ অক্টোবর নবীগহ্জ উপজেলা ও থানা প্রশাসন শারদীয় দুর্গাপুজায় যথাযথভাবে শান্তি শৃঙ্খলা বজার রাখতে বিশেষ আইন শৃঙ্খলা সভাসহ ব্যাপক প্রস্তুতি হাতে নিয়েছেন। আগামীকাল ২২ই অক্টোবর বৃহস্পতিবার ষষ্ঠী পুজার মধ্য দিয়ে নবীগঞ্জের সকল পুজা মন্ডগুলোতে ৫ দিন ব্যাপী শারদীয় দূর্গাপুজা শুরু হবে এবং ২৬ অক্টোবর সোমবার মহা দশমীবিহিত পুজার মাধ্যমে দেবী বিসর্জনের মধ্য দিয়ে পুজা সম্পন্ন হবে। হিন্দু ধর্মবলম্বীদের সর্ববৃহৎ এ পূজাকে কেন্দ্র করে সারাদেশের ন্যায় নবীগঞ্জের সকল পুজারী ও ভক্তবৃন্দের মাঝে সর্বত্র যেন উৎসবের আমেজ বিরাজ করেছে। তবে বর্তমান সময়ে বৈশ্বিক মহামারী করোনার কারনে এ বছর উৎসবের আমেজ অনেক কমে গেছে বলে জানিয়েছেন পুজারীবৃন্দ। তবে পুজারীদের বিশ^াস অসুর বিনাশিনী দেবী দুর্গাপুজার মাধ্যমে সমাজের সকল মহামারী ভাইরাস দুর হয়ে আবার স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফিরে আসবে।» « শহরের বিভিন্ন স্থানে অভিযানে ১৫০ লিটার দেশীয় মদ উদ্ধার

টমটম ও অটোরিকশার ব্যাটারি চার্জ দেয়ায় বিদ্যুতের ওপর চাপ বাড়ছে, দিনে রাতে অসংখ্যবার বিদ্যুত বিভ্রাট যানজটের শহর হবিগঞ্জে নেয়া হচ্ছে অটোরিকশা নিবন্ধনের উদ্যোগ


স্টাফ রিপোর্টার ॥ বছর পাঁচেক আগেও হবিগঞ্জ শহরের বাসিন্দাদের কাছে জনপ্রিয় এক যানবাহন হিসেবে বিবেচিত হতো ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক (টমটম) ও অটোরিকশা। কিন্তু সেই যানবাহনগুলোকেই এখন অভিশাপ হিসেবে দেখছেন অনেকেই। অবৈধ টমটম ও অটোরিকশার নিয়ন্ত্রণহীন চলাচলে হবিগঞ্জ শহর পরিণত হয়েছে এক দুর্ভোগের শহরে। এসব যানের কারণে শহরজুড়ে প্রতিনিয়তই তীব্র যানজট লেগে থাকছে। এ ছাড়া প্রায় দিনই ঘটছে ছোটখাটো দুর্ঘটনা। তবে যানজট নিরসনে ব্যবস্থা নিচ্ছে না প্রশাসন। জানা গেছে, যানজটের অন্যতম কারণ টমটম ছাড়াও এ বার হবিগঞ্জ পৌরসভা থেকে ব্যাটারি চালিত অটোরিকশার অনুুমতি দেয়ার প্রক্রিয়া চলছে। আগামি শুক্রবার অটোরিকশা সমিতির সভা হবার কথা রয়েছে। তবে কতটি অটোরিকশার অনুুুমতি দেয়া হচ্ছে সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার আগে জানা যাচ্ছে না। সরেজমিন দেখা গেছে, শহরে হাজার হাজার টমটম ও অটোরিকশার এলোমেলো চলাচলের কারণে প্রতিদিনই দীর্ঘ যানজট লেগে থাকছে। সাধারণ যাত্রীদের অভিযোগ, অধিকাংশ টমটম চলাচলের জন্য বৈধ কোনো অনুমতিপত্র নেই। চালকদের নেই কোনো ড্রাইভিং লাইসেন্সও। এমনকি চালকদের ট্রাফিক আইন সম্পর্কেও কোনো ধারণা নেই। ফলে এসব চালকদের কারণে প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা। ব্যস্ততম সড়কে খেয়াল খুশিমতো টমটম, অটোরিকশা দাঁড় করানো, সড়কের ডান পাশ ঘেঁষে চলা, বেপরোয়া ওভারটেকিং, নির্দিষ্ট কোনো স্টপেজ না থাকা এবং টার্ন নিতে গিয়ে জটলা পাকানো টমটম দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ বলে জানান ভুক্তভোগী যাত্রীরা। ব্যবসায়ী আজিজ বলেন, ‘যানজটের ভয়ে মেইন রোড দিয়ে চলাচল না করে ব্রেক রোড দিয়ে যাতায়াত করি। কিন্তু সেখানেও যানজট হচ্ছে।’ গতকাল বদিউজ্জামান সড়কের মোড়ে শিশু সন্তানকে সঙ্গে নিয়ে রাস্তা পারাপারের জন্য অপেক্ষা করছিলেন নীলা আক্তার। কিন্তু টমটমের ভিড় বেশি থাকায় তাকে সেখানে বেশ কিছুক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়। এ সময় তিনি বলেন, ‘ইজিবাইক (টমটম) কারণে আমরা বিরক্ত। টমটমের সংখ্যা এত বেড়েছে যে, রাস্তা পার হতেই ভয় করে। শুধু তাই নয়, ইজিবাইকের আধিক্যে রীতিমতো আতঙ্কিত সবাই। নিয়ন্ত্রণ না থাকায় একসময়ের জনপ্রিয় যানটিই এখন অভিশাপ হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রায় দিনই ঘটছে দুর্ঘটনা।’ গায়ে গায়ে লেগে থাকা টমটম আর অটোরিকশার জন্য ফুটপাতবিহীন সড়কে হাঁটা-চলা করাই এখন বিপদ হয়ে দাঁড়িয়েছে। যানজটে জীবনযাত্রা অতিষ্ট হয়ে পড়েছে। প্রাইভেটকার কিংবা মোটরবাইক নিয়ে সড়কে বেরই হওয়া যাচ্ছে না। জানালেন এক সাংবাদিক। জানা যায়, বেশ কয়েক বছর আগে জনসাধারণের কথা মাথায় রেখে ৫ টাকা ভাড়ায় ১২শ টমটমের অনুমতি দেওয়া হয় পৌরসভা থেকে। এ বছর আরো ১শ বাড়ানো হয়। কিন্তু চলাচল করছে ৬ হাজারের বেশি। এর বাইরে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা রয়েছে প্রায় ১ হাজার। ২০১১ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের বিদ্যুৎ বিভাগ থেকে চিঠি পাঠিয়ে ব্যাটারিচালিত টমটম ইজিবাইকের নিবন্ধন প্রদান ও নবায়ন না করতে নির্দেশ দেয়। তখন থেকেই মূলত টমটম নিয়ন্ত্রণে কার্যক্রম স্থবির হয়ে যায়। তবে এরপরও প্রতি বছর টমটম নিবন্ধন নবায়ন করা হয়। সুত্র জানায়, প্রতি দুই হাজার টমটম চার্জ করতে দিনে কমপক্ষে চার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ খরচ হয়। সে হিসেবে শহরে চলাচল করা ৬ হাজারের বেশি টমটম আর ১ হাজারের বেশি অটোরিকশা চার্জ করতে দিনে খরচ হচ্ছে ১৪ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ। আর বাড়তি এই চাহিদার কারণে লোডশেডিংয়ের কবলে পড়ছেন শহরবাসী। অনেকেই অটোরিকশার ব্যাটারি চার্জ করছেন বাড়িতেই। গ্যারেজত আছেই। ফলে লোডশেডিং হচ্ছে দিনে কমপক্ষে ১৫ বার। এদিকে শহরের গণপরিবহনে শৃঙ্খলা ফেরাতে পৌরসভা, কিংবা ট্রাফিক বিভাগ কেউই উদ্যোগ গ্রহণ করেছে না। তবে গত বছর প্রশাসন এর এক সভায় সিদ্ধান্ত হয় টমটম বন্ধ করে একটি নির্দিষ্ট রঙের সিএনজি চালুু করা হবে। যাতে শহরের বাইরে থেকে গাড়ি এলেই তা চিহ্নিত করা যায়। মূল্য উদ্দেশ্য হলো, আশপাশের এলাকা থেকে যেন টমটম এসে শহরে যানজট তৈরি না করতে পারে। পাশাপাশি ব্যাটারিচালিত রিকশার চলাচল নিষিদ্ধ করা হবে। এদিকে টমটম আর রিকশার ব্যাটারি চার্জ করার বিদ্যুতের জোগান দিতে গিয়ে চাপে পড়ছে বিদ্যুৎ বিভাগ এমনটাই জানা গেছে। অবৈধ টমটম আর নিয়ন্ত্রণহীন ব্যাটারিচালিত রিকশা চলাচলের বিষয়ে জানতে চাইলে নাম প্রকাশ না করে এক বেসরকারি কর্মকর্তা বলেন, ‘শহরে সড়ক ব্যবস্থাপনা ঠিক নেই। অনুমোদনহীন ইজিবাইক-ব্যাটারি রিকশা। কেউই নিয়ম যেমন মানতে চায় না, তেমনি সহনশীলও নয়।’ ট্রাফিক বিভাগ কার্যত ভুমিকা রাখছেনা বলে তার দাবি। তিনি দাবি করেন টমটম নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ হবিগঞ্জ পৌরসভা। কারণ অলিখিত ভাবে এটি নিয়ন্ত্রণ করছে একটি সিন্ডিকেট। যাদের অবৈধ আয় মাসে কয়েক লাখ টাকা। এছাড়া ভাড়া নেয়া হচ্ছে অতিরিক্তই। যেখানে অন্য সব বৈধ গণপরিবহন আগের ভাড়ায় ফিরেছে সেখানে কথিত একটি সমিতি মনগড়া ভাড়া চাপিয়ে দিচ্ছে জনগণের ওপর। এ নিয়ে সমালোচনার যেন শেষ নেই। অথচ পৌর কর্তৃপক্ষ চুপ। আগের ভাড়া বহাল নিয়ে করাননি মাইকিং। তার নিরবতার কারণে কথিত সমিতি তাদের নিয়োজিত চালক দিয়ে জনগণের কয়েক লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। হবিগঞ্জ পৌর মেয়র আদৌ কি টমটমের বিষয়ে পদক্ষেপ নিবেন প্রশ্ন অনেকের। এ বিষয়ে প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের সময়োচিত পদক্ষেপ কামনা করছেন হবিগঞ্জবাসী।

নিউজটি 41 বার পড়া হয়েছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সর্বশেষ সংবাদ

মাধবপুরে ট্রাক্টরের ধাক্কায় তিন মোটর সাইকেল আরোহীর নিহত

দুর্গা পূজায় স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতের আহবান জানালেন এমপি আবু জাহির

শহরের বিভিন্ন সড়কে দিন দুপুরে চলছে ট্রাক্টর ও ট্রাক

মাধবপুরে মাদ্রাসা ছাত্রী ইয়াসমিনের মৃত্যুর রহস্য উদ্ঘাটন ॥ আদালতে ১৬৪ ধারা স্বীকারোক্তি

সদর হাসপাতালে হেলপার দিয়ে অ্যাম্বুলেন্স চালানোর অভিযোগে দুই জনের কারাদন্ড

দুই মহিলার ভিজিডির চাল আত্মসাতের অভিযোগে চেয়ারম্যান মুকুলকে শোকজ

রোগির জরায়ু থেকে ৩৫টি টিউমার অপসারণ করলেন ডাঃ নুসরাত আরা

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের মূল যন্ত্রপাতি মোংলা বন্দরে

নবীগঞ্জ উপজেলার ৯০ টি মন্ডপে শারদীয় দূর্গাপুজা শুরু আজ উত্তম কুমার পাল হিমেল,নবীগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ নবীগঞ্জ উপজেলার ১৩ টি ইউনিয়নে ৮৪ টি ও পৌরসভায় ৬টি মিলে ৯০ টি পূজার মন্ডপে বছর ঘুরে আবারো হিন্দু স¤প্রদায়ের সর্ববৃহৎ উৎসব শারদীয় দূর্গাপুজার প্রস্তুতি ইতিমধ্যে জোরেশোরে শুরু হয়েছে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার ষষ্টীবিহিত পুজার মাধ্যমে শুরু হচ্ছে ৫ দিনব্যাপী বাঙ্গালী হিন্দু সম্প্রদায়ের সর্ববৃহৎ উৎসব শারদীয় দুর্গাপুজা। আনন্দময়ীর আগমনে ধনী-গরিব আবালবৃদ্ধ সকল পুজারী ও ভক্তবৃন্দের মাঝে যেন আনন্দের কমতি নেই কোন অংশেই। বাঙ্গালী হিন্দুদের সর্ববৃহৎ উৎসব শারদীয় দুর্গাপুজার আগমনী শোর সকলের মাঝে বিরাজ করছে। প্রতিটি পুজা মন্ডপে প্রতিমা তৈরীর কাজ সম্পাদন করার জন্য দিনরাত নিরবিছিন্নভাবে কাজ করে প্রতিমা তৈরীর কাজ ইতিমধ্যে শেষ করছেন নিয়োজিত প্রতিমা শিল্পীরা। প্রতিমা তৈরীর কাজ শেষ করে রং তুলির আছড়ে সৌন্দর্য্য বর্ধনের কাজও শেষ করছেন বলে জানিয়েছেন প্রতিমা রঙ্গেও চিত্রশিল্পীরা। তারপর মন্ডপ সাজসজ্জার কাজ শেষ করলেই উৎসবের আমেজে মেতে উঠবেন সবাই। তাই শারদীয় এ পুজাকে কেন্দ্র করে হিন্দু ধর্মাবলম্বী সকল পুজারী ও ভক্তবৃন্দের মাঝে বিপুল আনন্দ ও উৎসাহ উদ্দীপনা বিরাজ করছে। আনন্দ ও উৎসাহ উদ্দীপনা ঘাটতি নেই বিভিন্ন সংগঠন ও সামাজিক লোকজনের মাঝেও ।তবে বর্তমান সময়ে বৈশ্বিক মহামারী করোনার কারনে এ বছর উৎসবের আমেজ অনেক কমে গেছে বলে জানিয়েছেন পুজারীবৃন্দ। তবে সরকার নির্দেশিত স্বাস্থ্যবিধি মেনেই পুজার আনন্দ ভাগাভাগি করবেন বলে জানিয়েছেন তারা। শাস্ত্রমতে জানাযায়, এ বছর দেবীর দোলায় আগমন ফল মড়ক এবং দেবীর গজে গমন করবেন ফল শষ্যপুর্ণা বসুন্ধরা। সমাজের সকল আসুরিক শক্তির বিনাশ সাধন করে সর্বত্র শান্তি স্থাপনের মুলমন্ত্রই হলো শারদীয় দুর্গাপুজার মুল উদ্দেশ্য। সারা দেশের ন্যায় এ বছর নবীগঞ্জ ১৩টি ইউনিয়নে ৮৪টি এবং পৌরসভায় ৬ টি মন্ডপে সাড়ম্বরে পূজা অনুষ্টিত হবে। প্রত্যেক পূজা মন্ডপের নিরাপত্তা রক্ষায় এ বছর সরকারী সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পুলিশ ও আনসার বাহিনীর লোক নিয়মিত সময় না থাকায় সেচ্ছাসেবকরাই প্রতিটি পুজামন্ডপে দায়িত্ব পালন করবে। এছাড়া উপজেলায় ৯০ টি পুজামন্ডপের জন্য নবীগঞ্জ থানা পুলিশের ৯টি মোবাইল টীম সার্বক্ষনিক নিরাপত্তা রক্ষার দায়িত্ব পালন করবে। ইতিমধ্যে গত ১২ অক্টোবর নবীগহ্জ উপজেলা ও থানা প্রশাসন শারদীয় দুর্গাপুজায় যথাযথভাবে শান্তি শৃঙ্খলা বজার রাখতে বিশেষ আইন শৃঙ্খলা সভাসহ ব্যাপক প্রস্তুতি হাতে নিয়েছেন। আগামীকাল ২২ই অক্টোবর বৃহস্পতিবার ষষ্ঠী পুজার মধ্য দিয়ে নবীগঞ্জের সকল পুজা মন্ডগুলোতে ৫ দিন ব্যাপী শারদীয় দূর্গাপুজা শুরু হবে এবং ২৬ অক্টোবর সোমবার মহা দশমীবিহিত পুজার মাধ্যমে দেবী বিসর্জনের মধ্য দিয়ে পুজা সম্পন্ন হবে। হিন্দু ধর্মবলম্বীদের সর্ববৃহৎ এ পূজাকে কেন্দ্র করে সারাদেশের ন্যায় নবীগঞ্জের সকল পুজারী ও ভক্তবৃন্দের মাঝে সর্বত্র যেন উৎসবের আমেজ বিরাজ করেছে। তবে বর্তমান সময়ে বৈশ্বিক মহামারী করোনার কারনে এ বছর উৎসবের আমেজ অনেক কমে গেছে বলে জানিয়েছেন পুজারীবৃন্দ। তবে পুজারীদের বিশ^াস অসুর বিনাশিনী দেবী দুর্গাপুজার মাধ্যমে সমাজের সকল মহামারী ভাইরাস দুর হয়ে আবার স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফিরে আসবে।

শহরের বিভিন্ন স্থানে অভিযানে ১৫০ লিটার দেশীয় মদ উদ্ধার

আজ থেকে ২৫ টাকা দরে আলু বিক্রি করবে টিসিবি

পাটকল শ্রমিক নেতাদের মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ

হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবকে বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিল এর মুজিববর্ষের বই উপহার ভার্চ্যুয়ালী মতবিনিময়ে চেয়ারম্যান ও প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দ

হবিগঞ্জে আলুর বাজার নিয়ন্ত্রণে অভিযান ॥ ১৩ হাজার টাকা জরিমানা

২৫ ডিসেম্বরের মধ্যে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল

মাধবপুরে কাভার্ড ভ্যান ও ট্রাকের সংঘর্ষে আহত ৩

শহরে টমটম ভাড়া নিয়ে রণক্ষেত্র দুই দলের সংঘর্ষে আহত ১৫

হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে অভিযোগ লন্ডন প্রবাসি ইকবালের মিথ্যা মামলা ও লাঠিয়াল বাহিনীর অত্যাচারে ভিটেমাটি ছাড়া একটি নিরীহ পরিবার

বানিয়াচংয়ে আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময় সভা

শায়েস্তাগঞ্জে সাংবাদিকদের সাথে নবাগত ওসি’র মতবিনিময় সভা

সম্পাদক ও প্রকাশক ॥ মোঃ ইসমাইল হোসেন
প্রাইম অফসেট প্রিন্টিং প্রেস পৌর মার্কেট হবিগঞ্জ থেকে মুদ্রিত ও গার্নিং পার্ক হবিগঞ্জ হতে প্রকাশিত।।
মোবাইল ॥ ০১৭১৫-০০২৮৮৬
ইমেইল- swadeshbarta.hob@gmail.com
website : www.swadeshbarta.com